allabout Shah Ahmad Shafi

কারণ ও সমাধান। – ভাটি নাও

কারণ ও সমাধান। – ভাটি নাও

ধর্ষণ ধ্বংস করুন : কারণ ও সমাধান।

মানুষ যখন মানুষের মতো আচরণ না করে তখন সে আর মানুষ থাকে না। সে হয়ে যায় পশু , জন্তু-জানোয়ার। “মানুষ মানুষের জন্য” এই মহা বাণী তখন পশু , জন্তু-জানোয়ার রূপী মানুষের জন্য প্রযোজ্য হয় না। ধর্ষণ যারা করে তারা কখনই মানুষ হতে পারে না। ওরা আসলে মানুষরূপী হিংস্র পশু , জন্তু-জানোয়ার। ধর্ষক নামের মানুষরূপী হিংস্র পশু , জন্তু-জানোয়ারের ঠাঁই কখনোই মানব সমাজে হতে পারে না। তাই ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই।

সমাজে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ার উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ :
১. নিয়ন্ত্রণহীন তথ্য প্রযুক্তির অপব্যাবহার।
২. জাতীয় সংবাদপত্র সহ বিভিন্ন গণ মাধ্যমে বিশ্ব ও প্রতিবেশী দেশের নোংরা, অশ্লীল, কুৎসিত, জঘন্য পাপী ও বেশ্যাদেরকে সুন্দরী … ষ্টার ( তারকা) বলে প্রচার করা।
৩. জাতীয় সংবাদপত্রসহ বিভিন্ন গণ মাধ্যমে ইন্টারনেট বিজ্ঞাপনের জন্য নোংরা, অশ্লীল, কুৎসিত, জঘন্য পাপী ও বেশ্যাদের ছবি আসা। পত্রিকার সম্পাদক হয়ত এ বিষয় এ নজর দেয়ার সময় পান না। আই টি অফিসার এ দেয় এড়াতে পারে না।
৪. ওয়েব সিরিজ ও বিনোদন এর নামে ধর্ষণ কে উস্কে দেয়া।
৫. প্রতিষ্ঠিত হওয়ার অপেক্ষায় সঠিক সময়ে ছেলে বা মেয়ে কে বিয়ে না করানো।
৬. সমাজে ভালো ভদ্র নৈতিক জ্ঞান সম্পন্ন মানুষের সম্মান না থাকা।
৭. বিদেশী অভদ্র নোংরা পোশাক অনুসরণ করে মেয়েরা রাস্তা ঘাট, সিনেমা ও শপিং এ যাওয়া।
৮. সন্তান তার মোবাইল এ একা একা অথবা বন্ধু বান্ধবের সাথে কি কি দেখে অভিবাবকরা স্বাধীনতার নামে নজর
না রাখা।
৯. যার যার ধর্ম অনুসরণ না করা। সকল ধর্মে ধর্ষণ জঘন্য পাপকর্ম বলা হয়েছে। যদিও গোমূত্র পানকারীদের কিছু নোংরা ধর্মে অশ্লীল নোংরা ও যৌন উত্তেজক মূর্তির পূজাকে পুণ্যকর্ম ভাবা হয়। এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা বৈ কিছু না। গোমূত্র পানকারীদের ভিতর কিছু ভালো সাধুও রয়েছে।

ধর্ষণ বন্ধে কিছু পরামর্শ :
১. উল্লেখিত ৯ টি কারণ বন্ধ করা।
২. ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দ্রুত কার্যকর করা ও জাতীয় সংবাদপত্র সহ বিভিন্ন গণ মাধ্যমে বার বার সেই খবর প্রকাশ করা।
৩. মানুষ মানুষের জন্য এ ধরণের মহা বাণী সম্বলিত সংগীত লিখা, বিনোদন (হালাল নাটক, হালাল সিনেমা ও হালাল সিরিয়াল) বানানো ও নিয়মিত প্রচার করা।

দেশবাসী মহান আল্লাহ্পাকের নিকট ধর্ষণ বন্ধের জন্য দুআ করা।

 

– সম্পাদক এবং প্রকাশক (ভাটিনাও):

বিশিষ্ট তথ্যপ্রযুক্তিবিদ, জ্বালানিবিহীন যানবাহন ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিজ্ঞানী
প্রকৌশলী মুহাম্মদ রিয়াজুল হক 
বি.এসসি.ইঞ্জি. (সি.এস.ই.); এসসি.ইঞ্জি. (চালকবিহীন বিমান ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা), (ইউনিভার্সিটি অফ ইস্ট লন্ডন, লন্ডন, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য); মোবাইল এন্ড ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন (বুয়েট), পিএইচ.ডি. (গবেষক: এস.ডি.এন. ও কৃত্রিম উপগ্রহ) (মাল্টিমিডিয়া ইউনিভার্সিটি, সাইবারজায়া, মালয়েশিয়া)।
কাতীবুল মুর্শিদ, তা‘লিমে ইসলাম মানিকগঞ্জ দরবার শরীফ, ছিদ্দিক নগর, মানিকগঞ্জ, বাংলাদেশ।
গবেষক, ছিদ্দিকীয়া রিসার্চ সেন্টার, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা,বাংলাদেশ।
গবেষণা বিজ্ঞানী, টেলিকম মালয়েশিয়া (টিএম) রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার, সাইবারজায়া, মালয়েশিয়া।
সিনিয়র সফটওয়্যার প্রোগ্রামার, এক্সসেল প্রাইভেট লিমিটেড, শুন লি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক, বেদক, সিঙ্গাপুর।


More Story on Source:

*here*

কারণ ও সমাধান। – ভাটি নাও

21

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *